Free songs

গ্রাফিক্স ডিজাইন এন্ড মাল্টিমিডিয়া

গ্রাফিক্স ডিজাইন এন্ড মাল্টিমিডিয়া : কম্পিউটার বিজ্ঞানের অন্যতম শক্তি হচ্ছে গ্রাফিক্স ডিজাইন এন্ড মাল্টিমিডিয়া । যেকোনো ধরনের পত্রিকা, ব্রশিওর, প্রকাশনা, রং-বেরঙের বিজ্ঞাপন, টিভি এডভারটাইসমেন্ট, কেবল টিভির অনুষ্ঠান, বইয়ের প্রচ্ছদ, কার্টুন, টিভি প্রোগ্রাম এবং শৈল্পিক যেকোনো কাজে আজ কম্পিউটার গ্রাফিক্স প্রফেশোনালদের হাতের ছোয়া লক্ষনীয়।গ্রাফিক্স ডিজাইন এন্ড মাল্টিমিডিয়া-এর এই বিশাল চাহিদার দিকে লক্ষ্য রেখে এডমাস এই কোর্সে ছাত্র-ছাত্রী ভর্তি শুরু করেছে। এই কোর্সে থাকছে- এডোবি ফটোশপ, এডোবি ইলাস্ট্রেটর, কোয়ার্ক এক্সপ্রেস, এডোবি প্রিমিয়ার, ফ্ল্যাশ, কালার কনসেপ্ট, ডিজাইন কনসেপ্ট, ইউটিলিটি সফটওয়্যার-এর ব্যবহার, প্রজেক্ট ওয়ার্ক।

এই কোর্স সমাপ্তির পর আপনি হতে পারেন ডিটিপি অপারেটর, গ্রাফিক্স ডিজাইন, ভিডিও এডিটর, আউট সোর্সিং কাজের উপযোগী কর্মী।সম্পূর্ণ কোর্সটিতে থাকছে হাতে কলমে ম্যাগাজিনের পেজ মেকআপ, প্রচ্ছদ ডিজাইন, ভিডিও এডিটিং এবং প্রি-প্রেস প্রসেসিং এর সম্পূর্ণ অনুশীলন। কোর্সের শেষে বিভিন্ন ধরনের ৬টি প্রজেক্ট সম্পন্ন করা হবে।

কোর্সে আমরা যা শিখব

এডোবি ফটোশপ : এডোবি ফটোশপ হচ্ছে ছবি প্রসেসিং সফটওয়্যার। এখানে আমরা শিখব কিভাবে আমরা ছবি প্রসেস করতে পারি। স্পেশাল ইফেক্ট তৈরী করতে পারি। ব্যাকগ্রাউন্ড তৈরী করতে পারি। ভিডিও এবং স্থির ছবি এর বর্ডার তৈরী করতে পারি। বইয়ের প্রচ্ছদ তৈরীর কৌশল। এবং ছবিতে লেখালেখি। প্রফেসনাল ভিডিও এর ফ্রেমিং এর মাপ।এবং স্ক্যান টেকনিক।

এডোবি ইলাস্ট্রেটর : এডোবি ইলাস্ট্রেটর হচ্ছে ড্রইং করবার উপযোগী সফটওয়্যার। এখানে আমরা শিখব কি ভাবে বিভিন্ন ধরনের সেপ তৈরী করা যায়। কিভাবে আমরা বিভিন্ন ধরনের স্টাইলএ লেখা লেখি করতে পারি। বিভিন্ন ধরনের স্পেশাল ইফেক্ট তৈরী করার কৌশল। ব্যানার, পোস্টার, লিফটলেট, লোগো, বিভিন্ন ধরনের কার্ড, পন্যের মোড়ক ও ডিজাইন ( কাপড় বা প্রিন্টেড) তৈরীর কলা কৌশল।

কোয়ার্ক এক্সপ্রেস : কোয়ার্ক এক্সপ্রেস হচ্ছে একটি আউটপুট সফটওয়্যার। এখানে আমরা শিখব কি ভাবে আমরা প্রি-প্রেস প্রসেসিং। মানে আমরা জানব কিভাবে আমরা কালার প্রজেক্ট কালার সেপারেশন এর উপযোগী করে ইমেজ স্টাইলার এর মাধমে পজেটিভ আউট পুট নেবার কলাকৌশল।

এডোবি প্রিমিয়ার: এডোবি প্রিমিয়ার হচ্ছে ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার। এখানে আমরা জানব কিভাবে আমরা বিয়ে, জন্মদিন অথবা টেলিভশন প্রোগ্রাম সম্পাদনা করতে পারি। ভিডিও তে বিভিন্ন ধরনের ইফেক্ট দিতে পারি। তা সে ভিডিও তে ইফেক্ট অথবা টেক্সট ইফেক্ট। আমরা আরো জানব কিভাবে ফিল্মে বিভিন্ন ধরনের স্পেশাল ইফেক্ট দেওয়া যায়। এবং বিভিন্ন ধরনের আউটপুট এর ধরন। প্রফেসনাল এবং হোম ভিডিও। ফ্রেম রেট।

ফ্ল্যাশ: ফ্ল্যাশ হচ্ছে দ্বি-মাত্রিক অ্যানিমেশন সফটওয়্যার। এখানে আমরা শিখব কিভাবে আমরা দ্বি-মাত্রিক অ্যানিমেশন তৈরী করতে পারি। অ সফটওয়্যার এর মাধ্যমে আমরা দ্বি-মাত্রিক কার্টুন তৈরী করতে পারি। জানব এর কলা কৌশল ও।

কালার কনসেপ্ট: কালার কনসেপ্ট ছাড়া গ্রাফিক্স এন্ড মাল্টিমিডিয়া কোর্সের কোনো মুল্য নাই। আমরা যেকোনো ধরনের ডিজাইন এবং এডিট করি না কেন? তা দৃষ্টি নন্দন হবে না। দৃষ্টি নন্দন প্রজেক্ট সম্পন্ন করতে হলে আমাদের অবশ্যই কালার কনসেপ্ট খুব ভালো হতে হবে। একমাত্র ভালো কালার কনসেপ্ট-ই পারে দৃষ্টি নন্দন প্রজেক্ট উপহার দিতে।

ডিজাইন কনসেপ্ট: ডিজাইন কনসেপ্ট ও কালার কনসেপ্ট ছাড়া কোনো ভাবেই একটি ভালো প্রজেক্ট সম্পন্ন হতে পারে না। তাই আমাদের কালার কনসেপ্ট এর সাথে সাথে ডিজাইন কনসেপ্ট সম্পর্কেও খুব ভালো ধারণা থাকতে হবে। কারণ ডিজাইন কনসেপ্ট না থাকলে আমরা জানব কিভাবে কোথায় কোন অবজেক্ট রাখলে আমাদের সিকুএন্স বা দৃশ বাস্তব সম্মমত লাগবে। আর এসব কারনেই আমাদের ডিজাইন কনসেপ্ট থাকা খুব জরুরি।

ইউটিলিটি সফটওয়্যার: ইউটিলিটি সফটওয়্যার বলতে আমরা বলতে চচ্ছি ডিজাইন এবং ভিডিও এডিট করবার জন্য আমাদের আমাদের প্রচলিত সফটওয়্যার ব্যতিত আরো কিছু সফটওয়্যার এর প্রয়োজন হয়। যেমন প্লাগইনস ও সহকারী সফটওয়্যার এগুলোরই ব্যবহারই আমরা জানব।

মেয়াদ কাল: ৩ মাস ও ৬ মাস।

সর্টিফিকেট: গ্রাফিক্স ডিজাইন এন্ড মাল্টিমিডিয়া কোর্সটি বাংলাদেশ কারিগরী শিক্ষা বোর্ড অনুমোদিত ।