Free songs

 

কম্পিউটার অফিস এপ্লিকেশন

কম্পিউটার অফিস এপ্লিকেশন: এক কথায় বলা যায়- কম্পিউটার ভুবনে প্রবেশ করার প্রথম দরজাই হলো এম. এস. ওয়ার্ড। ফিঙ্গারিং দিয়েই শুরু হবে শিক্ষার্থীদের কম্পিউটার অফিস এপ্লিকেশন কোর্স। কারণ যার ফিঙ্গারিং যত ভালো তার টাইপিং স্পিড তত ভালো। যেহেতু, কম্পিউটার অফিস এপ্লিকেশন কোর্সটি সম্পন্ন করে অফিসিয়াল কাজ করবার জন্য তৈরী হয়, সেহেতু টাইপিং স্পিড এ ক্ষেত্রে গুরুত্ব পূর্ণ। এ কোর্সের বিষয় সমূহ হচ্ছে- কম্পিউটার ফান্ডামেন্টাল, উইনডস ৭, এম. এস. অফিস (ওয়ার্ড, এক্সেল, পাওয়ার পয়েন্ট, এক্সসিস, ফন্ট পেজ), কম্পিউটার হার্ডওয়্যার পরিচিতি, ইন্টারনেট- এর ব্যবহার কোর্স শেষে থাকছে প্রজেক্ট ওয়ার্ক। যার মাধ্যমে একজন শিক্ষার্থী সঠিক ভাবে কোর্স সম্পূর্ণ করে দক্ষ জন শক্তিতে রূপান্তর হতে পারে।

কোর্সে আমরা যা শিখব

কম্পিউটার ফান্ডামেন্টাল : কম্পিউটার ফান্ডামেন্টাল এর মাধ্যমে আমরা জানতে পারব কম্পিউটার-এর অতীত ও বর্তমান সম্পর্কে, কম্পিউটার এর কাজের ক্ষেত্র সম্পর্কে। মোট কথা কম্পিউটার ফান্ডামেন্টাল এর মাধ্যমে আমরা কম্পিউটার সম্পর্কে একটা ধারণা নিতে পারব। উইন্ডোজ ৭: উইন্ডোজ ৭ হচ্ছে একটি অপারেটিং সিস্টেম এই অপারেটিং সিস্টেম কিভাবে কাজ করে এবং অপারেটিং সিস্টেম কে আমরা আমাদের প্রয়োজনে কিভাবে সাজাতে পারি সে সম্পর্কে জানব।

এম. এস. অফিস ওয়ার্ড: মাইক্রোসফট অফিস ওয়ার্ড হচ্ছে পৃথিবীর সবচেয়ে জনপ্রিয় ওয়ার্ড প্রসেসিং সিস্টেম। এর মাধ্যমে আমরা জানব কিভাবে আমরা বিভিন্ন ধরনের অফিস ডকুমেন্ট তৈরী করতে পারি, সাজাতে পারি এবং প্রিন্ট করতে পারি। ওয়ার্ড শিক্ষবার পর আমরা প্রজেক্ট ওয়ার্ক এর মাধ্যমে নিজেদের তৈরী করব।

এম. এস. অফিস এক্সেল: মাইক্রোসফট অফিস এক্সেল হচ্ছে পৃথিবীর সবচেয়ে জনপ্রিয় হিসাব প্রসেসিং সিস্টেম। এর মাধ্যমে আমরা জানব কিভাবে আমরা বিভিন্ন ধরনের হিসাব নিকাশের কাজ করতে পারি। এক্সেল শিক্ষবার পর আমরা প্রজেক্ট ওয়ার্ক এর মাধ্যমে নিজেদের তৈরী করব।

এম. এস. অফিস পাওয়ার পয়েন্ট: পাওয়ার পয়েন্ট হচ্ছে জনপ্রিয় প্রজেন্টেসন এপ্লিকেশন। যার মাধ্যমে আমরা দৃষ্টি নন্দন প্রজেন্টেসন বা উপস্থাপনা তৈরী করতে পারব। এখানে আমরা শিক্ষবো বাস্তব ভিত্তিক উপস্থাপনা কিভাবে তৈরী করা যায় এবং উপস্থাপনা করার কলা কৌশল।

এম. এস. অফিস এক্সসিস: এক্সসিস হচ্ছে জনপ্রিয় ও প্রথন সারির ডেটা বেস ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম। এর মাধ্যমে আমরা ডেটা বেস তরীর কাজ করতে পারব। এক্সসিস শিক্ষবার পর আমরা ব্যাঙ্কিং ডেটা বেস এ কিভাবে এন্ট্রি করতে হয়, ছাত্র-ছাত্রীদের ডেটা কিভাবে এন্ট্রি করতে হয় সে সম্পর্কে জানব।

ফন্ট পেজ: ফন্ট পেজ মাইক্রোসফট কর্পরেসন কর্তৃক বাজারজাত কৃত এপ্লিকেশন সফটওয়্যার। এর মাধ্যমে আমরা পার্সোনাল ওয়েব সাইট তৈরী করতে পারব। ফন্ট পেজ শেষে আমরা একটি প্রজেক্ট সম্পন্ন করব।

কম্পিউটার হার্ডওয়্যার পরিচিতি: কম্পিউটার হার্ডওয়্যার পরিচিতিতে আমরা জানব একটি কম্পিউটার তৈরিতে কিকি ধরনের হার্ডওয়্যার প্রয়োজন, এবং হার্ডওয়্যার গুলো দেখতে কেমন এবং কোন ধরনের হার্ডওয়্যার কি ধরনের কাজ করে।

ইন্টারনেট- এর ব্যবহার: বর্তমান সময়ে ইন্টারনেট একটি অতীব প্রয়োজনীয় মাধ্যম। আমরা কম্পিউটার এর কাজ জানি কিন্তু ইন্টারনেট ব্যবহার করতে জানিনা এটা খুব একটা সুখকর নয়। কারণ আমরা যখন অফিস এ কাজ করব তখন অফিস এর প্রয়োজনে আমাদের কোনো ডকুমেন্ট মেইল করতে হতে পারে। কিন্তু আমরা যদি এটা না পারি তাহলে কিভাবে আমরা কাজের উপযোগী হলাম। তাই বর্তমানের তথ্য প্রযুক্তির যুগে আমাদের ইন্টারনেট- এর ব্যবহার জানা অতীব জরুরি। এডমাসে কম্পিউটার ব্যবহারিক কাজের মাধ্যমে আমরা ইন্টারনেট- এর ব্যবহার শিক্ষবো।

প্রজেক্ট ওয়ার্ক: কোর্স শেষে থাকছে প্রজেক্ট ওয়ার্ক। যার মাধ্যমে একজন শিক্ষার্থী সঠিক ভাবে কোর্স সম্পূর্ণ ই করেনা কম্পিউটার এ দক্ষ জন শক্তিতে ও রূপান্তর হতে পারে। এডমাস শুরু থেকেই সে প্রচেষ্ঠায় অঙ্গীকারাবদ্ধ।

মেয়াদ কাল: ৩ মাস ও ৬ মাস।

সর্টিফিকেট: কম্পিউটার অফিস এপ্লিকেশন কোর্সটি বাংলাদেশ কারিগরী শিক্ষা বোর্ড অনুমোদিত